তাদের নাম দিয়েছি ভুল ধরা পার্টি : ড. হাছান মাহমুদ

ডেস্ক: | ১২:১৩ মিঃ, মে ২, ২০২১



টেলিভিশনের পর্দায় দেখা গেলেও বিএনপি ও তাদের মিত্ররা জনগণের পাশে নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, তাদের সমগ্র বাংলাদেশের কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এখন। আমরা কী কাজ করছি সেটাতে কোনো ভুল আছে কিনা শুধু সেগুলো খুঁজে বেড়ায়। তাই তাদের নাম দিয়েছি আমি ভুল ধরা পার্টি।

শনিবার (১ মে) চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় তথ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত উদ্যোগে দিনমজুর ও দরিদ্রদের মাঝে খাদ্র্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে একথা বলেন। রাঙ্গুনিয়া পৌরসভায় অ্যাডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকদার অডিটোরিয়ামে তথ্যমন্ত্রীর পারিবারিক দাতব্য প্রতিষ্ঠান এনএনকে ফাউন্ডেশন এই খাদ্যসামগ্রী বিতরণের আয়োজন করে।

এদিন রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা, চন্দ্রঘোনা, মরিয়মনগর, পদুয়া ও শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়নের দুই হাজার পরিবারে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ক্রমান্বয়ে দশ হাজার পরিবারে এ সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হবে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘মাঝে মধ্যে বিএনপি ও তাদের মিত্রদের ঢাকা শহরে প্রেস ক্লাবের সামনে দেখা যায়, নয়াপল্টনে সংবাদ সম্মেলন করার জন্য দেখা যায় আর বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দেখা যায়। অথবা ঘর থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে সরকারের সমালোচনা করেন তারা। তাদের সমগ্র বাংলাদেশের আর কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এখন। আমরা কী কাজ করছি সেটাতে কোনো ভুল আছে কিনা শুধু সেটা খুঁজে বেড়ায়। তারা শুধু ভুল ধরে, নিজেরা কোনো কাজ করে না, তাই তাদের নাম দিয়েছি আমি ভুল ধরা পার্টি। এই ধরনের ভুল ধরা পার্টি রাঙ্গুনিয়ায়ও আছে। তাদের এখন দেখা যাচ্ছে না, ভোট আসলে দেখা যাবে, তখন তাদের জিজ্ঞেস করতে হবে, এতদিন কোথায় ছিলেন?’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগ খেটে খাওয়া ও মেহনতি মানুষের দল। গরীব মানুষ ভোট দিয়ে আমাদের দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দিয়েছে, তাই আমাদের দল গরীব মানুষের কথা ভাবে, অনেকে গরীব মানুষের কথা ভাবে না। আমাদের দল এবং সরকার জনগণের পাশে আছে এবং থাকবে। অন্য কেউ নাই, তারা শুধু গলা ফাটায়। করোনার প্রথম ঢেউ যখন বাংলাদেশে আঘাত হানে তখন সরকারের পক্ষ থেক সাত কোটির বেশি মানুষকে ত্রাণ দেওয়া হয়েছিল। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ১ কোটি ২৫ লাখ মানুষকে ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হয়েছিল। এর বাইরে অনেকে ব্যক্তিগতভাবে ত্রাণ দিয়েছিল।’

‘করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতের অবস্থা খুবই করুণ। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষকে রক্ষা করার জন্য সরকারিভাবে কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করেছেন। এর ফলে দৈনিক উপার্জনের ওপর নির্ভরশীল, দিনমজুর, খেটে খাওয়া মানুষ, তাদের অনেকের অসুবিধা হচ্ছে। এজন্য সরকারের পক্ষ থেকে আবারও ব্যাপক ত্রাণ তৎপরতা শুরু হয়েছে। কোটি কোটি মানুষের কাছে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। শুধু তাই নয়, বঙ্গবন্ধুকন্যা নির্দেশ দিয়েছেন জনগণের পাশে থাকার জন্য। বাংলাদেশে আমাদের দলের নেতৃত্বে সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে। সেই ধান আবার তাদের বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে’— বলেন হাছান মাহমুদ।

এনএনকে ফাউন্ডেশনের সমন্বয়কারী আবদুর রউফ মাস্টারের সভাপতিত্বে ও এমরুল করিম রাশেদের সঞ্চালনয়ায় এ সময় আরও বক্তব্য দেন রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাসুদুর রহমান, পৌর মেয়র শাহজাহান সিকদার, রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আনোয়ার হোসেন শামীম, আওয়ামী লীগ নেতা মুহাম্মদ আলী শাহ, কামরুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।

মন্তব্যঃ সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ 16 বার।





এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

০৭:৩২ মিঃ, নভেম্বর ১৯, ২০১৮

তারেকের বিষয়ে ইসির কিছুই করার নেই

সর্বশেষ আপডেট

বিএসএমএমইউ-তে চিকিৎসার ব্যাপারে আরও সময় চান খালেদা এরা কী আন্দোলন করবেন, সবাই তো মঞ্চে ঘুমাচ্ছিলেন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল চান ড. কামাল নিউইয়র্ক পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী চার হাজার মামলার কারণ জানতে চেয়ে রিট গায়েবি মামলায় ২২ দিনে আসামি ৩ লাখ ২৫ হাজার : রিজভী ১০ জেলায় নতুন ডিসি ধানের শীষ জনগণের কাছে বিষ : কাদের মংলা-বুড়িমারী বন্দরে শতভাগ দুর্নীতি : টিআইবি আসন বাড়লেও কমেছে এমবিবিএস ভর্তিচ্ছুর সংখ্যা! পাক-ভারত সেনাবাহিনীর মধ্যে ফের উত্তেজনা, পাল্টাপাল্টি হুমকি বিএনপি পার্টিটাই ভুয়া : কাদের ‘ব্যক্তিগতভাবে আমার চাওয়া-পাওয়ার কিছুই নেই’ ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলা, নিহত বেড়ে ২৪
Designed & Developed by TechSolutions Bangladesh